Best Reseller Hosting Service in BD
আমি একজন অদৃশ্য মানব। কোন কিছু ভালো লাগলে সবার সাথে শেয়ার করি। এটাই আমার শখ। ভালো থাকবেন আর আমার জন্য দোআ করবেন।
মোট পোস্ট সংখ্যা: 105  »  মোট কমেন্টস: 20  
Facebook
Google Plus
Twitter
Linkedin

জেনেনিন আক্কেল দাঁতের অসহ্য ব্যথা দূর করার সহজ ৫ টি উপায়

আক্কেল দাঁতের সমস্যা খুব সাধারণ একটি সমস্যা। এই সমস্যায় প্রায় সব মানুষকেই কখনো না কখনো ভুগতে হয়। সাধারণত ১৭ থেকে ২৫ বছর বয়সে আবার কখনও কখনও আরও বয়স করে আক্কেল দাঁত উঠে থাকে। আক্কেল দাঁত ওঠার সময় প্রচন্ড ব্যথা হয়। মাড়ি ফুলে যায়। দাঁতের ব্যথা শুরু হলেই সবসময় ডেন্টিস্টের কাছে দৌড়াতে হবে তা কিন্তু নয়। সাময়িকভাবে এই অসহ্য দাঁতের ব্যথা দূর করা সম্ভব ঘরোয়া কিছু উপায়ে।

১। লবঙ্গ

একটি তুলোর বলে লবঙ্গের তেল লাগিয়ে নিন। এটি দাঁতের ব্যথার মাড়িতে লাগিয়ে রাখুন। এটি দিনে দুই থেকে তিনবার করুন। এছাড়া দুই থেকে তিনটি লবঙ্গ আক্কেল দাঁতের স্থানে রাখুন। লবঙ্গ দ্রুত আক্কেল দাঁতের ব্যথা কমিয়ে দেবে।

e-HostBD Hosting Service

২। রসুন

দাঁত ব্যথা কমাতে রসুনের জুড়ি নেই। এক কোয়া রসুন নিয়ে চিবিয়ে খান।চিবিয়ে খেতে ভালো না লাগলে রসুনের কোয়া ব্যথায় আক্রান্ত দাঁতে চেপে ধরে রাখুন। আপনি চাইলে রসুন কুচি কুচি করে কেটে আক্রান্ত দাঁতে দিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট রাখুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে কুলি করে ফেলুন।

৩। লবণআক্কেল দাঁতের অসহ্য ব্যথা দূর করার সহজ ৫ উপায়

লবণ আক্কেল দাঁতের মাড়ির ইনফ্লামেশন কমিয়ে ইনফেকশন দূর করে থাকে। এক চা চামচ লবণ এক কাপ কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। এটি দিয়ে কুলকুচি করুন। এছাড়া সমপরিমাণ লবণ এবং গোলমরিচ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার পেস্টটি দাঁতের ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন কয়েক মিনিট। এটি দিনে দুই তিন বার করুন। ব্যথা দূর না হওয়া পর্যন্ত ব্যবহার করুন।

৪। পেঁয়াজ

পেঁয়াজে আছে অ্যান্টিসেপটিক , অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রবিয়াল উপাদান যা দাঁতের ব্যথা, জীবাণু সব কিছু সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। পেঁয়াজ ছিলে কেটে নিন। এবার এটি চিবিয়ে খান। চিবিয়ে খেতে ভাল না লাগলে দাঁত ব্যথার স্থানে এক টুকরো পেঁয়াজ রেখে দিন। দেখবেন ব্যথা কমে গেছে।

৫। ভ্যানিলা এসেন্স

ভ্যানিলা এসেন্সের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান আক্কেল দাঁতের ব্যথা কমিয়ে দেয়। একটি তুলোর বলে কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা এসেন্স লাগিয়ে নিন। এবার তুলোর বলটি ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এটি দিনে দুই থেকে তিনবার করুন।






eHostBD Hosting

মন্তব্য করুন