Best Reseller Hosting Service in BD
মোট পোস্ট সংখ্যা: 72  »  মোট কমেন্টস: 8  
Facebook
Google Plus
Twitter
Linkedin

যে ৪টি কাজ বাড়িয়ে দিচ্ছে আপনার অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি

sleep-make-mসুস্থ থাকতে কে না চায় বলুন? সুস্থ থাকার জন্য কত কিছুই না করে থাকে মানুষ। নিয়মিত ব্যায়াম, নানান রকমের খাওয়া দাওয়া, ওষুধ ইত্যাদি সবই তো সুস্থ থাকার জন্য। কিন্তু আমাদের কিছু অসাবধানতা কিংবা ভুল কাজের জন্য আমরাই বাড়িয়ে দিচ্ছি নিজেদের অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি। জেনে নিন ৪টি কাজ সম্পর্কে যেগুলো বাড়িয়ে দিচ্ছে আপনার অকাল মৃত্যুর সম্ভাবনা!

বালিশের নিচে কিংবা বুক পকেটে ফোন রাখা

মোবাইল ফোন তো এখন সবারই আছে। বুক পকেটে ফোন রেখে সারাদিনই চলাফেরা করেন অনেক মানুষ। আর রাতে ঘুমানোর সময় বালিশের নিচে ফোনটা না রাখলেই না। কারণ সময় দেখা, এলার্ম দেয়া সবই তো ফোনেই তাই না? কিন্তু বুক পকেটে ফোন রাখা কিংবা বিছানায় বালিশের নিচে ফোন রাখার অভ্যাস আপনার আয়ু কমিয়ে দিচ্ছে খুব দ্রুত। মোবাইল ফোনের ক্ষতিকর রেডিয়েশন হার্ট ও ব্রেইনের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। তাই এই অভ্যাস ত্যাগ করাই ভালো।

e-HostBD Hosting Service

রাত জাগার অভ্যাস

ইদানিং তরুণ প্রজন্মের রাত জাগার অভ্যাসটা অনেক বেশি। সারাদিন ক্লাস করে এসেও রাতে না ঘুমিয়ে ফেসবুক কিংবা মোবাইলে চ্যাট করে রাত কাটিয়ে দেয়ার অভ্যাস গড়ে তুলেছেন অনেকেই। কিন্তু অতিরিক্ত রাত জাগার ফলে অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। বিভিন্ন গবেষণাতে গবেষকরা বার বারই বিষয়টি প্রমাণ করেছেন যে রাত জাগার অভ্যাস আয়ু কমিয়ে দেয় খুব দ্রুত। সেই সঙ্গে নানান রকমের শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

একনাগাড়ে চেয়ারে বসে থাকা

ইদানীং প্রায় সব অফিসেই একনাগাড়ে চেয়ারে বসে কাজ করতে হয় দীর্ঘক্ষণ। একনাগাড়ে বসে থাকার ফলে অনেকেরই ভুঁড়ি বেড়ে যায় খুব দ্রুত। পুরো শরীরের ওজনটা তো বাড়েই। সেই সঙ্গে দেখা দেয় চোখের ও পিঠের নানান সমস্যা। একনাগাড়ে বেশিক্ষণ বসে থাকার অভ্যাস শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এতে হার্টের সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। সেই সঙ্গে অতিরিক্ত মেদের কারণে নানান রকমের স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয় যা অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয় অনেকখানি।

পিরিয়ডের বিলম্ব নিয়ে অবহেলা

অনেক নারীই পিরিয়ডে বিলম্ব হওয়ার ব্যাপারে বেশ অসচেতন। একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পিরিয়ড না হলেও অনেকেই ভাবেন তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। কিন্তু নিয়মিত পিরিয়ড হলো সুস্থতার লক্ষণ। তাই পিরিয়ড অনিয়মিত হলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত এবং সমস্যা খুলে বলা উচিত। যে কোনো গাইনি সমস্যাই অবহেলা করা উচিত নয়।






eHostBD Hosting

মন্তব্য করুন