Best Reseller Hosting Service in BD

আপনারা দেখছেন "স্বাস্থ্য বিষয়ক" এর অন্তর্ভুক্ত পোস্টসমূহ

ছবিসহ স্বাস্থ্য টিপস – Health Tips Bangla

ছবিসহ স্বাস্থ্য টিপস - Health Tips Bangla

Download Link ছবি সহ স্বাস্থ্য পরামর্শ বা হেলথ গাইড ও তথ্য (sastho kotha) নিয়ে ডেভেলপার টীম Wikibdapps এর এই অ্যাপটি আপনাদের স্বাস্থ্য বিষয়ক সমস্যার সমাধান জানতে সহায়তা করবে। এই অ্যাপটির ইমেজ বা ছবি সমূহ ফেসবুকে বা মেসেঞ্জার-এ শেয়ার […]

ক্যান্সার, হৃদরোগ ও ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি দেবে কুমড়োর বিচি

seed anytechtune

ভারতের ডি কে পাবলিশিং হাউসের একটি বই ‘হিলিং ফুডস’-এ বলা হয়েছে, কুমড়ার বিচি (বীজ) ভিটামিন বি, ম্যাগনেশিয়াম, লোহা ও প্রোটিনের ভালো একটি উৎস। বিচিগুলোতে অপরিহার্য ফ্যাটি অ্যাসিড উচ্চমাত্রায় রয়েছে। এই ফ্যাটি অ্যাসিড রক্তে অস্বাস্থ্যকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সহায়তা […]

হজম ক্ষমতার উন্নতি এবং লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ায় লবঙ্গ

লবঙ্গ খুবই সহজলভ্য একটি মশলা। আমাদের রসুই ঘরে ঢুকলেই এই উপকারী বস্তুটির দেখা মেলে। দাঁতের ব্যথা কিংবা ত্বকের রোগ সংক্রমণ রুখতে এর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। আসুন জেনে নেই লবঙ্গ কীভাবে আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ ভূমিকা পালন করতে পারে। ১. […]

আমরা সাধারনত নতুন পোশাক না ধুয়েই পরি, জানেন কি এটি কতটুকু নিরাপদ?

আমরা সাধারনত নতুন পোশাক না ধুয়েই পরি, জানেন কি এটি কতটুকু নিরাপদ

নতুন পোশাকের একটা আলাদা চাকচিক্য থাকে। পোশাক ধোয়ার পর এর নতুন ভাবটি চলে যায় বলে আমরা অনেকেই না ধুয়ে কিছুদিন ব্যবহার করি পোশাকটি। কিন্তু এই কাজটি কি আসলে আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ? লিন্ডসে বর্ডন এমডি, কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি […]

সকালের নাস্তা না খেলে বেড়ে যায় হৃদরোগ হওয়ার ঝুঁকি

সকালের নাস্তা না খেলে বেড়ে যায় হৃদরোগ হওয়ার ঝুঁকি

আমেরিকার চিকিৎসকগণের দেয়া নতুন দিক নির্দেশনা অনুযায়ী –  দিনের প্রধান খাবার ও স্ন্যাক্স এর পরিকল্পনা করা এবং প্রতিদিন সকালের নাস্তা করা কার্ডিওভাস্কুলার ডিজিজ হওয়ার ঝুঁকি কমায়। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের বৈজ্ঞানিক বিবৃতির মতে, দিনের প্রথমভাগে অনেক বেশি ক্যালরি গ্রহণ […]

কিছু রোগ সম্পর্কে আমাদের ভুল ধারনা গুলো চলুন আজকে সংশোধন করে নেয়া যাক

Anytechtune Image

আমাদের অনেকেরই কিছু গুরুত্বপূর্ণ রোগ সম্বন্ধে ভুল ধারনা আছে। যেগুলো আসলে সত্যি নয়। চলুন দেখে নেয়া যাক আমাদের ভুলগুলো কি এবং সঠিক তথ্য কি। আশা করি আপনাদের ভাল লাগবে এবং কাজে লাগবে। ১. ভুলঃ কোমর ব্যথা মানে কিডনি […]

ওয়াই-ফাই কী আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য নিরাপদ ? ওয়াই-ফাই -এর কারণে কী ক্যান্সার হতে পারে ? =বিস্তারিত টিউন=

  আসসালামু আলাইকুম   ওয়াই-ফাই কী আপনার স্বাস্থ্যের জন্য নিরাপদ? ওয়াই-ফাই কারণে কী ক্যান্সার হতে পারে ? ওয়েল, এই ধরনের প্রশ্নে আপনি উদ্বিগ্ন হবেন না কারণ ওয়াই-ফাই আপনার স্বাস্থ্যের কোন ক্ষতি না। এটি একটি non-ionizing (স্থুলানুতে পরিনত হয় […]

সকালে নাকি সন্ধ্যায় – ব্যায়ামের জন্য উপযুক্ত সময় কখন?

সকালে নাকি সন্ধ্যায় - ব্যায়ামের জন্য উপযুক্ত সময় কখন

আপনি কি শরীরচর্চার কথা ভাবছেন? কখন কোন সময়কে বেছে নেবেন তাই নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন? সকালে নাকি সন্ধ্যায় শরীরচর্চা হবে কখন এই নিয়ে রয়েছে নানান গবেষণা। আসুন আপনার এক্সারসাইজ রুটিন করার সুবিধার্থে জেনে নিই সেইসব গবেষণার কথা। সকালে ব্যায়াম […]

জেনে নিন একটি সাধারণ কলার অসাধারণ পুষ্টিগুনের কথা

জেনে নিন একটি সাধারণ কলার অসাধারণ পুষ্টিগুনের কথা

শিশু থেকে বয়স্ক সব ধরণের মানুষই সুস্বাদু ও সুমিষ্ট কলা পছন্দ করে। কলা স্বাস্থ্যকর ফল হিসেবে পরিচিত। কারণ কলা বিভিন্ন ধরণের পুষ্টি উপাদান যেমন- ভিটামিন সি, ভিটামিন বি ৬, রিবোফ্লাভিন, ফোলেট, প্যান্টোথেনিক এসিড, নায়াসিন, পটাসিয়াম, ম্যাংগানিজ, ম্যাগনেসিয়াম, কপার, […]

জেনেনিন আক্কেল দাঁতের অসহ্য ব্যথা দূর করার সহজ ৫ টি উপায়

আক্কেল দাঁতের অসহ্য ব্যথা দূর করার সহজ ৫ উপায়

আক্কেল দাঁতের সমস্যা খুব সাধারণ একটি সমস্যা। এই সমস্যায় প্রায় সব মানুষকেই কখনো না কখনো ভুগতে হয়। সাধারণত ১৭ থেকে ২৫ বছর বয়সে আবার কখনও কখনও আরও বয়স করে আক্কেল দাঁত উঠে থাকে। আক্কেল দাঁত ওঠার সময় প্রচন্ড […]

বয়সের সাথে সাথে হাড় ক্ষয় প্রতিরোধে খান ক্যালসিয়ামসমৃদ্ধ খাবার

বয়সের সাথে সাথে হাড় ক্ষয় প্রতিরোধে খান ক্যালসিয়ামসমৃদ্ধ খাবার

হাড়ের ক্ষয়জনিত বাত রোগের ডাক্তারি পরিভাষায় নাম অস্টিওপরোসিস। ক্যালসিয়াম শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। হাড় ও দাঁত গঠনের কাজে ক্যালসিয়াম অত্যন্ত প্রয়োজন, হাড়ের বোন প্রোটিন দিয়ে ম্যাট্রিক্স তৈরি হয়, আর তার ওপরে ক্যালসিয়াম ফসফেটের প্রলেপ পড়ে হাড় শক্ত হয়। […]

যে ৫টি প্রাকৃতিক উপাদান অ্যান্টিবায়োটিকের মত কাজ করে

যে ৫টি প্রাকৃতিক উপাদান অ্যান্টিবায়োটিকের মত কাজ করে

ইনফেকশন দূর করতে  ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আন্টিবায়োটিকের প্রধান কাজ হল শরীরের অভ্যন্তরীণ ব্যাকটরিয়া উৎপাদন বন্ধ করে ইনফেকশন দূর করা। আমাদের শরীর নানা ধরণের ব্যাকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকে। আর এই ব্যাকটেরিয়া দূর করতে বিভিন্ন অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করা […]

যে লক্ষণগুলো দেখা দিলে আপনি বুঝবেন আপনার এপেন্ডিসাইটিস হয়েছে

যে লক্ষণগুলো দেখা দিলে আপনি বুঝবেন আপনার এপেন্ডিসাইটিস হয়েছে

এপেন্ডিক্স হচ্ছে একটি সরু টিউব আকৃতির থলি যা বৃহদান্ত্রের বাইরের প্রলম্ববিত অংশ। এটি ৬ ইঞ্চি লম্বা এবং পেটের নিচের দিকে ডান পাশে অবস্থিত। আপনার বেঁচে থাকার জন্য এপেন্ডিক্সের কোনই কার্যকারিতা নেই। যখন এপেন্ডিক্স ইনফেকশনে আক্রান্ত হয় ও ফুলে […]


যে লক্ষণগুলো দেখা দিলে আপনি বুঝবেন আপনার এপেন্ডিসাইটিস হয়েছে

এপেন্ডিক্স হচ্ছে একটি সরু টিউব আকৃতির থলি যা বৃহদান্ত্রের বাইরের প্রলম্ববিত অংশ। এটি ৬ ইঞ্চি লম্বা এবং পেটের নিচের দিকে ডান পাশে অবস্থিত। আপনার বেঁচে থাকার জন্য এপেন্ডিক্সের কোনই কার্যকারিতা নেই। যখন এপেন্ডিক্স ইনফেকশনে আক্রান্ত হয় ও ফুলে যায় তখন তাকে এপেন্ডিসাইটিস বলে। এপেন্ডিসাইটিস হওয়ার কারণ সব সময় বোঝা যায়না। এপেন্ডিক্স নামক উপাঙ্গটি যদি মিউকাস, পরজীবী অথবা মল দ্বারা পরিপূর্ণ হয়ে যায় তখন খুব যন্ত্রণা হয়। উদ্দীপ্ত এপেন্ডিক্সের ভেতরে ব্যাকটেরিয়া খুব দ্রুত সংখ্যা বৃদ্ধি করে। যদি সঠিক সময়ে চিকিৎসা করা না হয় তাহলে এটি বিস্ফোরিত হতে পারে। এর ফলে পুঁজ বের হয়ে এর আশেপাশের সব স্থানে ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে যেতে পারে যা হতে পারে জীবন সংশয়কারী। জন্স হপকিন্স মেডিসিন এর মতে, এপেন্ডিসাইটিসের লক্ষণের সূত্রপাত হওয়ার ৪৮-৭২ ঘন্টার মধ্যে ব্রাস্ট হতে পারে। তাই আসুন জেনে নিই এপেন্ডিসাইটিসের লক্ষণ গুলো সম্পর্কে।

১। পেটে ব্যথা এপেন্ডিসাটিসের ব্যথা প্রায়ই পেটের ডান পাশে উৎপন্ন হয়। সাধারণত নাভির কাছাকাছি অংশে অস্বস্তি হয়। যা আস্তে আস্তে পেটের নীচের অংশে যেতে থাকে। শিশু এবং গর্ভবতী মহিলাদের পেটের বিভিন্ন স্থানে বা পাশে ব্যথা হতে দেখা যায়। ব্যথার অবস্থা খারাপ হয় পা বা পেটের নাড়াচাড়ার সময়, হাঁচি বা কাশি দিলে, ঝাঁকুনি খেলে যেমন- অসমান রাস্তায় গাড়ী চালানোর সময়।

২। পেট ফুলে যাওয়া তীক্ষ্ণ ব্যথার সাথে সাথে যদি পেট ফুলে যায় তাহলে সেটা এপেন্ডিসাইটিসের কারণে হতে পারে।

৩। বমি বমি ভাব ও বমি হওয়া   যদিও বমি বমি ভাব অনেক রোগেরই লক্ষণ হতে পারে। তথাপি যদি বমি বমি ভাবের সাথে পেটে ব্যথা হয় ও সাথে সাথে বমিও হয় এবং কিছু সময় পর যদি প্রশমিত না হয় তাহলে তা এপেন্ডিসাইটিসকেই নির্দেশ করে।

৪। ক্ষুধামন্দা খাবারের প্রতি অনীহা অথবা ক্ষুধা না লাগাও এপেন্ডিসাইটিসের একটি লক্ষণ।

৫। পরিপাকের সমস্যা এপেন্ডিসাইটিস হলে হজমের সমস্যা হতে দেখা যায় যেমন- ডায়রিয়া হতে পারে অথবা কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে। কারো কারো ক্ষেত্রে গ্যাসের সমস্যা হতে পারে।

৬। হালকা জ্বর এপেন্ডিসাইটিসের ফলে নিম্নমাত্রার জ্বর হতে পারে যা ১০০ ডিগ্রী ফারেনহাইটের নীচে থাকে। আবার শরীর ঠাণ্ডাও হয়ে যেতে পারে। যদি এপেন্ডিক্স ব্রাস্ট হয় তাহলে জ্বর বৃদ্ধি পায়।

উপরোক্ত লক্ষণগুলো দেখা দিলে ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন। ব্লাড টেস্ট, আল্ট্রাসনোগ্রাম ও ইউরিন টেস্টের মাধ্যমে এপেন্ডিসাইটিস নির্ণয় করা যায়। পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে আপনার ডাক্তার সিদ্ধান্ত নেবেন জরুরী ভিত্তিতে অপারেশনের প্রয়োজন আছে কিনা। লেপ্রোস্কপি বা এপেন্ডেকটমি সার্জারির মাধ্যমে এপেন্ডিসাইটিস অপসারণ করা হয়। ১৫-৩০ বছর বয়সের মানুষের এপেন্ডিসাইটিস হতে দেখা যায়। মহিলাদের চেয়ে পুরুষের ক্ষেত্রে এপেন্ডিসাইটিস হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

e-HostBD Hosting Service