Best Reseller Hosting Service in BD

আপনারা দেখছেন "স্বাস্থ্য বিষয়ক" এর অন্তর্ভুক্ত পোস্টসমূহ

যে ৫টি অভ্যাস আপনাকে অসুস্থ করে তুলছে প্রতিদিন

কথায় বলে ‘মানুষ অভ্যাসের দাস’! আসলে কিন্তু অনেকটাই তাই। কেননা প্রতিদিন আমরা না জেনে অভ্যাসবশত করে ফেলি অনেক কিছুই। বুঝতেও পারি না এর সুদূর প্রসারী ফলাফল আমাদের জন্য ভালো হবে, নাকি খারাপ। আমরা অনেকেই কিছু কাজ অভ্যাসে পরিনত […]

সুখবর ! মোবাইল ফোন মানবদেহের কোন ক্ষতি করে না

অপবাদ থেকে থেকে মুক্ত হলো মোবাইল ফোন। ক্যান্সারের অন্যতম কারণ, এই ভয়াবহ অপবাদ  ছিল মোবাইলের ঘাড়ে। নতুন এক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে শিশু অবস্থায় ক্যান্সার বা রক্তের ক্যান্সারের(লিউকোমিয়া) কারণ নয় এই দরকারি যন্ত্রটি। বহুদিন ধরেই ভয় ছিল মোবাইল ফোনের […]

সারাদিন চেয়ারে বসে থেকে ঘাড় ও কোমরে ব্যাথা? দেখে নিন কিভাবে বসতে হবে

জীবন জিবিকার প্রয়জনে আমাদের অনেককেই অফিস বা ব্যাবসা ক্ষেত্রে দীর্ঘক্ষণ চেয়ারে বসে থাকতে হয়। এ চেয়ারে বসে থাকার দরুন আমাদের ভুগতে হয় অনেক সমস্যায়। তার মধ্যে সবচেয়ে ক্ষতিকর ও দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা হল কোমর ব্যাথা ও ঘাড়ে ব্যাথা। ডেস্ক […]

গাজর খান, সুস্থ থাকুন, জেনে নিন কিভাবে ?

উজ্জ্বল কমলা রঙ এর সবজি গাজর। মিষ্টি স্বাদের কচকচে এই সবজিটি ছোট বড় সবারই খুবই প্রিয়। দেখতে আকর্ষনীয় বলে এই সবজিটি অনেকেরই প্রিয়। পুষ্টিগুণেও গাজর অনন্য। প্রতি ১০০ গ্রাম গাজরে কার্বোহাইড্রেট ১০.৬ গ্রাম, প্রোটিন ০. ৯ গ্রাম, ফ্যাট […]

বাবা হতে চাইলে মোবাইল বন্ধ করুন

মোবাইল ফোন ব্যবহারে পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা কমে যায়। বিশেষ করে মোবাইল ফোনটি চালু করে প্যান্টের পকেটে রাখলে পুরুষের শুক্রানুতে বড় ধরনের প্রভাব ফেলে এবং তা কমে প্রায় অর্ধেক হয়ে যায়। ফলে মোবাইল ফোন ব্যবহারে পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা হ্রাস […]

মাথায় টাক পড়া হতে পারে হার্টের রোগের লক্ষণ

অতিরিক্ত পরিমানে চুল পড়ে গেলে মাথায় টাক হয়। সবার ধারনা এটি খুবই সাধারণ ব্যপার। ছেলেদের টাক পড়তেই পারে। বংশগত ভাবে অথবা মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা কিংবা যত্ন না নেয়ার ফলে মাথায় টাক পড়ে বলেই সবার ধারণা। কিন্তু এই টাক […]

দাঁত ব্যথা নিরাময়ের ৭টি জাদুকরি উপায়

দাঁতের ব্যাথাকে আমরা অনেকে আমল দেই না। প্রয়োজনমতো দাঁতের যত্ন নেই না, ডেন্টিস্টের কাছে যাই না নিয়মিত। এর পর যখন দাঁতের ব্যথায় প্রাণ ওষ্ঠাগত হয় তখনই কেবল ডেন্টিস্টের কাছে দৌড়াই। কিন্তু দাঁত ব্যথার রয়েছে বড়ই বাজে একটা অভ্যাস। […]

পুরুষের শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করে যে ৬টি খাবার

সুখী দাম্পত্য জীবনের মূল মন্ত্র হলো পুরুষের শারীরিক সক্ষমতা ও সুস্থ সন্তানের জন্মদান করতে পারা। শরীর সুস্থ না থাকলে দাম্পত্য জীবন কখনোই সুখের হয় না ও সুস্থ সন্তানের জন্ম হয় না। আজকাল অনেক পুরুষই সন্তান জন্মদানের অক্ষমতায় ভুগে […]

বিষাদ কাটাতে ওষুধ নাকি মনোচিকিৎসা

রোগী যেন গবেষণাগারের গিনিপিগ। চিকিৎসক কখনো ওষুধ দেন, কখনো আবার পরামর্শ। অথচ কারো কারো একটাতেই কাজ চলে। কিন্তু কার কোনটা দরকার সেটা বোঝার উপায় কী? এ নিয়ে এতদিনের সংশয় বোধহয় দূর হতে চলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ইমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ৬৭ জন […]

জলদি ওজন কমাতে চান? খাওয়ার সময় মনে রাখুন ৮টি টিপস

একটু বাড়তি ওজন নিয়ে বিপদে পড়েন অনেকেই। ওজন কত দ্রুত, কিভাবে কমাতে হবে তা ভাবার পেছনেই সময় ব্যয় করে ফেলেন। অনেক কিছু করেও থাকেন। কিন্তু শত চেষ্টাতেও কমতে চায় না ওজন। শেষমেশ আশা হারিয়ে চুপচাপ মেনে নিয়ে বসে […]

দৈনন্দিন জীবনের দরকারি কিছু জিনিস যা খুব কাজের

আসসালামু আলাইকুম। সবাইকে আমার শুভেচ্ছা। আজকে কিছু জিনিস শেয়ার করবো যা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খুবই জরুরি। যদিও অনেকেই এসব জানেন তারপরেও আবার মনে করে দেয়ার জন্য আজকের এই পোস্ট টি লেখা।আশা করি নিছের বিষয় গুলি মেনে চলবেন। ১. […]

স্বাস্থ্যোজ্জ্বল সুন্দর ত্বক পাওয়ার কিছু উপায়

বাস্থ্যোজ্জ্বল সুন্দর ত্বক সবার কাম্য। সব তরুণীর একটাই জিজ্ঞাসা, কীভাবে পাব একটি সুন্দর, স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বক? কেউ কেউ আছেন যারা খুবই ভাগ্যবান। যারা জিনগত বা বংশগত কারণে সুন্দর ত্বকের অধিকারী। তবে বাকিরা কী করবেন? সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত ও […]

শীতে শিশুর সর্দি, কাশি ও নিউমোনিয়া সম্পর্কে জেনে নিন

শীতের প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে, নানা রকম শীতকালীন রোগও বেড়ে যায়। তবে সবচেয়ে নাজুক অবস্থা হয় শিশুদের। এই সময়ে নিউমোনিয়া এবং শ্বাসকষ্ট এ দুটি রোগ শিশুর জন্য বয়ে আনতে পারে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি। এসময় শিশুর প্রতি রাখতে হবে […]


শীতে শিশুর সর্দি, কাশি ও নিউমোনিয়া সম্পর্কে জেনে নিন

শীতের প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে, নানা রকম শীতকালীন রোগও বেড়ে যায়। তবে সবচেয়ে নাজুক অবস্থা হয় শিশুদের। এই সময়ে নিউমোনিয়া এবং শ্বাসকষ্ট এ দুটি রোগ শিশুর জন্য বয়ে আনতে পারে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি। এসময় শিশুর প্রতি রাখতে হবে

বাড়তি সতর্কতা ও নিতে হবে বাড়তি যত্ন। আর এসব রোগ যদি হয়েই পড়ে তাহলে বুঝবেন কি করে? আর বুঝলে কি কি ব্যবস্থা নেবেন-

১. নিউমোনিয়া
লক্ষণ:
দ্রুত শ্বাস-প্রশ্বাস- নবজাতকের ক্ষেত্রে মিনিটে ৬০ বার, ১ বছরের মধ্যের বাচ্চাদের ক্ষেত্রে মিনিটে ৫০ বার, ১-৩ বছরের ক্ষেত্রে মিনিটে ৪০ বার হলে আমরা দ্রুত শ্বাস-প্রশ্বাস বলব। আর এরকম হলে-
বুকের খাঁচার নিচে দেবে যাবে
নাকের ডগা ফুলে যাওয়া শ্বাসের সঙ্গে সঙ্গে।
গায়ের তাপমাত্রার উর্ধগতি এমনকি ১০৪ ডিগ্রী ফারেনহাইটে উপনীত হতে পারে।
বাচ্চার চেহারাতে একটি কানত্মি ও অসুস্থতার ভাব প্রকট থাকে।
কাশি: রাত্রিকালীন কাশের প্রকোপ বেশি হতে পারে এবং সকাল ভোরের দিকে।
কফ: ছোট্ট বাচ্চাদের ক্ষেত্রে কফ নাও বের হতে পারে।
বুকে ঘড় ঘড় আওয়াজ পাওয়া যেতে পারে।
এই সব শিশুদের ক্ষেত্রে সাধারণত স্ট্রেপটো কক্কাস, হিমোফিলাস ইনফুয়েঞ্জি ও স্টাফাইলো কক্কাস রোগের জীবাণু দ্বারা আক্রান্তের সংখ্যাই বেশি। কিছু ভাইরাসও জড়িত থাকতে পারে।

এক্ষেত্রে কী করবেন:
বাচ্চার যদি খুব শ্বাসকষ্ট থাকে তাহলে হাসপাতালে নেওয়াই ভাল। তিন মাসের নিচে বাচ্চাদের ক্ষেত্রে কিংবা শিশুর শরীর যদি বারে বারে নীল হয়ে আসে তাদের হাসপাতলে ভর্তি করতে হবে।
আপনি আপনার পারিবারিক শিশু চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।
তবে যদি শ্বাসকষ্ট অতটা না থাকে তাহলে বাসায় চিকিৎসা করা যেতে পারে।

বাড়িতে চিকিৎসার ক্ষেত্রে:
বাচ্চার জ্বর কমাতে সিরাপ প্যারাসিটামল ব্যবহার করুন। ওজন অনুযায়ী ১৫ মি.গ্রা./কেজি/ প্রতিবার সেবনে। দিনে ৪ বার উর্ধ্বে ৬ বার পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারেন। প্যারাসিটামল দেয়ার আধ ঘণ্টা পর কুসুম গরম পানি দিয়ে গা-হাত, পা-মাথা মুছিয়ে দিন আধা ঘণ্টা ধরে।
প্রয়োজনে এন্টিবায়োটিক ব্যবহার করতে হবে, তবে এ বয়সের বাচ্চাদের ক্ষেত্রে সাধারণত এ্যামোক্সিসিলিন বা তৃতীয় জেনারেশন সেফিক্সিম ব্যবহার করা যেতে পারে। মনে রাখবেন এ্যান্টিবায়োটিক অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শেই ব্যবহার করতে হবে। নাক-গলা বাল্ব সাকার দিয়ে পরিষ্কার করলে উপকার পাওয়া যাবে।
নাকে নরমাল স্যালাইন ড্রপ ব্যবহার করুন, ১ ফোঁটা করে ২ নাকে ৪ বার/৬ বার দিয়ে পরিষ্কার রাখুন নাসিকা পথ।
শ্বাসটান বা বুকের আওয়াজের জন্য আমরা সিরাপ স্যালবিউটামল বা নেবুলাইজেশন মেশিনে বাষ্পায়িত স্যালবিউটামল ব্যবহার করতে পারি।

২. ব্রংকোলাইটিস বা শিশুর হাঁফ
লক্ষণ:
এক্ষেত্রে নিউমোনিয়ার মতো বাচ্চা অত অসুস্থ হবে না। বাচ্চা মোটামুটি হাসি-খুশি থাকবে কিন্তু বুকে বাঁশির মতো আওয়াজ থাকবে।
অল্প তাপমাত্রা বাড়বে। ১০০ থেকে ১০১ ডিগ্রী ফারেনহাইট হতে পারে। প্রথমে নাক দিয়ে পানি পড়ে তারপর দুএকদিনের মধ্যে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়।
ব্রংকোলাইটিস সাধারণত রেসপিরেটরি ভাইরাস দিয়ে বেশি হয়। তবে অন্য ভাইরাস যেমন ইনফুয়েঞ্জা প্যারা ইনফুয়েঞ্জা এ্যাডিনো ভাইরাস দিয়ে হতে পারে।
২ মাস থেকে ২ বছর এর বয়স সীমা। তবে ৬ মাস থেকে ৯ মাস পর্যন্ত বাচ্চাদের ক্ষেত্রে প্রকোপ বেশি হয়।

এক্ষেত্রে কী করণীয়:
বাসায় রেখে চিকিৎসা করাতে পারেন।
নাক-গলা পরিষ্কার করতে হবে। বাল্ব সাকার ব্যবহার করতে পারেন।
বেশি করে তরল খাদ্য খাওয়াতে হবে।
নাকে নর্মাল স্যালাইন ড্রপ ব্যবহার করতে পারেন।
সাধারণত এ্যান্টিবায়োটিক দিতে হবে না। তবে বাচ্চার বয়স যদি ৩ মাসের নিচে হয় তবে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী এ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করতে হবে। যদি নতুন করে বুকে বাড়তি প্রদাহ হয় বা তাপমাত্রা অনেক বৃদ্ধি পায় তবে এ্যান্টিবায়োটিক দিতে হবে।
শ্বাসকষ্টের জন্য সিরাপ স্যালবিউটামল বা বাষ্পায়িত স্যালবিউটামল ব্যবহার করা যেতে পারে।
জ্বরের জন্য সিরাপ প্যারাসিটামল ব্যবহার করতে পারেন। তবে মনে রাখতে হবে, বাচ্চার বয়স যদি ৩ মাসের নিচে হয় বা বাচ্চা যদি এন্টিক্যান্সার ড্রাগ খায় বহুদিন ধরে কিংবা বাচ্চা অন্য কোন রোগের কারণে স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ বেশ কিছুদিন ধরে সেবন করে সে ক্ষেত্রে ব্রংকোলাইটিস আরো খারাপ হতে পারে। এমতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করাই শ্রেয়।

e-HostBD Hosting Service