Best Reseller Hosting Service in BD

আপনারা দেখছেন "স্বাস্থ্য বিষয়ক" এর অন্তর্ভুক্ত পোস্টসমূহ

দাঁতের মাড়ি সুস্থ থাকুক সঠিক উপায়ে

আমরা সুস্বাস্থ্যের জন্য কত কিছুই না করে থাকি। দেহের প্রায় প্রতিটি অঙ্গের সুরক্ষার জন্যই নানান ধরনের কাজ করি। কিন্তু সব সময়ই দাঁতের সুরক্ষাকে একটু কমই গুরুত্ব দেই। এবং এর চাইতেও কম গুরুত্ব দিয়ে থাকি দাঁতের মাড়ির প্রতি। কিন্তু […]

শীতের কাঁপুনি দূর করে উষ্ণতা আনবে যে ৬ প্রকার খাবার

শীতটা বেশ জাঁকিয়েই বসেছে কিছুদিন যাবত। ঠাণ্ডায় জমে যাওয়ার মত অবস্থা। সোয়েটারের ওপর জ্যাকেট আর জ্যাকেটের ওপরে শাল পরেও যেন শীত কমছে না। বাইরে বেরুনোর কথা শুনলেই লেপের নিচে যাওয়ার কথা মাথায় আসে। কিন্তু কাজের ব্যস্ততায় বাইরে তো […]

ভাল ঘুমের জন্য নিছের নিয়মগুলো মেনে চলুন

আমাদের জীবন যাপনে সামান্য কিছু পরিবর্তন এনে দিতে পারে গভীর ঘুম। ঘুম ভালো না হলে সারাদিনই তার প্রভাব পড়ে শরীর এবং কাজের ওপর। আসুন জেনে নিই শান্তিতে ভাল ঘুমের প্রস্তুতির জন্য কি কি করতে পারি: ১. বাইরে থেকে […]

দ্রুত ওজন কমানোর খাদ্যাভাস!

বাস্থ্যই সকল সুখের মূল – সর্বজনবিদিত এ কথাটি আর নতুন কওে বলার অবকাশ নেই। শরীর অসুস্থ থাকলে কোনো কিছুই ভালো লাগে না। আর নানা ধরনের অসুখ-বিসুখের জন্মদাতা হলো অতিরিক্ত ওজন। তাই ওজন নিয়েও মানুষের চিন্তার অন্ত নেই। কী […]

শরীর ভালো রাখতে প্রাণ খুলে কান্না-হাসি

হাসি আর কান্না দুটোই আমাদের স্বাভাবিক জীবন প্রক্রিয়ার একটি অংশ। কোনো ভালো সংবাদে আমরা যেমন খুশি হয়ে হাসি আবার তেমনিভাবে কোনো খারাপ সংবাদ বা দুঃখের পরিবেশে আমাদের মন ভারাক্রান্ত হয়, তখন আমরা কাঁদি। কিন্তু অনেকেই আছেন নিজের খুশিটা […]

এজমা বা হাঁপানি থেকে রক্ষার উপায়

যাদের নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হয় তাদের বলা হয় এজমার রোগী। বাংলায় বলে হাঁপানি। এজমা হলে মানুষের শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হয়। সে সময় নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হয়, শ্বাসের সঙ্গে একটা টান চলে আসে। এ টানকেই বলে হাঁপানি। যখন মানুষের লাংগস […]

রোগপ্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায় বাঁধাকপি

শীতকালীন সবজি বাঁধাকপি। বাঁধাকপিতে রয়েছে রোগপ্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ানো এবং ওজন কমানোর মতো গুরুত্বপূর্ণ সব উপাদান।পুষ্টিবিজ্ঞানীদের মতে, প্রতি ১০০ গ্রাম বাঁধাকপিতে রয়েছে ১.৩ গ্রাম প্রোটিন, ৪.৭ গ্রাম শর্করা, ০.০৬ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি১, দশমিক ০৫ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি২ ও ৬০ […]

সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সকাল বেলায় জরুরি ৬টি সুঅভ্যাস

একটি সুন্দর জীবন কে না চায়? আর সুন্দর জীবনের মূল চাবিকাঠি হলো সুস্বাস্থ্য। সুস্বাস্থ্য পেতে হলে চাই ছন্দেবাঁধা জীবন, পরিমিত আহার গ্রহণ এবং নিয়ম মেনে চলা। কিন্তু এই দৌড়ঝাঁপের জীবনে নিজের প্রতি এত খেয়াল রাখার সময় কোথায়। এতকিছু […]

স্বাস্থ্যের জন্য ভালো যে ৪টি “অস্বাস্থ্যকর” খাবার

যে খাবারগুলো ওজন বাড়াতে সাহায্য করে কিংবা শরীরে ফ্যাট কিংবা কোলেস্টরলের সমস্যা করে আপাত দৃষ্টিতে সেগুলো অস্বাস্থ্যকর খাবার। কিন্তু দুঃখের ব্যাপার হল এই খাবারগুলোই বেশি সুস্বাদু হয়ে থাকে। এই জন্য দোটানায় পড়ে মন। মনের কথা শুনবেন নাকি ডাক্তারের […]

প্রতিদিন ১ চামচ মধুর এক ডজন স্বাস্থ্য উপকারিতা

মধু তার অসাধারণ ঔষধি গুনের কারনে প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। মধুর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন বি১, বি২, বি৩, বি৫, বি৬, আয়োডিন, জিংক ও কপার সহ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান যা আমাদের শুধুমাত্র দেহের বাহ্যিক দিকের জন্যই নয়, দেহের […]

ত্যাগ করুন দ্রুত ওজন বাড়ার জন্য দায়ী ১০টি ভুল অভ্যাস

অধিকাংশ মানুষের ক্ষেত্রে ওজন বাড়ানো যেমন সোজা, ওজন কমানো ঠিক তেমনি কঠিন কাজ। পেঁয়াজ মরিচ দিয়ে ঝাল ঝাল করে তেলে ভাজা ওমলেটের তুলনা কী ডিম সিদ্ধের সাথে হয়? কিংবা হাতের কাছে মচমচে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই থাকতে সালাদ খেতে কার […]

ঘুমানোর আগে যে ৬টি কাজ ওজন কমাতে সহায়ক

ওজন সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের অনেকেই নানান চেষ্টার পরেও ওজন কমাতে পারছেন না। ওজন কমানোর চিন্তায় চিন্তায় ঘুমও হারাম হয়ে গিয়েছে অনেকের। ওজন কমানোর জন্য নানান রকম হারবাল ওষুধ আর এটাওটা ব্যবহার করে ফলাফল পাওয়া দূরে থাক উল্টো […]

জেনে নিন হাঁপানির ৫টি লক্ষণ ও উপশমের উপায়

২০ নভেম্বর ছিল World COPD Day, COPD মানে হল ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ- অর্থাৎ ফুসফুসের বিশেষ কিছু রোগকে একত্রে COPD বলা হয়ে থাকে। এই রোগগুলোর মধ্যে এ্যাজমা বা হাঁপানির প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। বর্তমানে পৃথিবীতে ২৩৫ থেকে প্রায় ৩০০ […]


জেনে নিন হাঁপানির ৫টি লক্ষণ ও উপশমের উপায়

e-HostBD Hosting Service

২০ নভেম্বর ছিল World COPD Day, COPD মানে হল ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ- অর্থাৎ ফুসফুসের বিশেষ কিছু রোগকে একত্রে COPD বলা হয়ে থাকে। এই রোগগুলোর মধ্যে এ্যাজমা বা হাঁপানির প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। বর্তমানে পৃথিবীতে ২৩৫ থেকে প্রায় ৩০০ মিলিয়ন লোক আক্রান্ত রয়েছে হাঁপানিতে, এর মাঝে গত এক বছরে মারা গেছেন প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ। তাই আপনি এ রোগের বাইরে আছেন এমনটা ভেবে নিশ্চিন্ত থাকার কোন কারণই নেই। তাই আপনি আসলেই আক্রান্তদের মাঝে আছেন কি না তা যাচাই করে নিন।

এ্যাজমা বা হাঁপানির প্রধান উপসর্গগুলো হচ্ছেঃ

  • নিঃশ্বাসে কষ্ট হওয়া, বুকে চাপ দেওয়ার অনুভূতি হওয়া বা ব্যথা হওয়া, ঠান্ডা লাগলে নিঃশ্বাস নেবার সময় বুকে শব্দ হওয়া, কাশি, শ্বাসকষ্টের জন্য ঘুমাতে সমস্যা ইত্যাদি হতে পারে।
  • অনেকেই ঠান্ডা লেগে বুকে শব্দ হওয়াকে কফ জনিত শব্দ বলে অবহেলা করেন কিন্তু হাঁপানির অন্যতম প্রধান লক্ষণই এটি।

আর কিছু কিছু ক্ষেত্র আছে যখন এসব লক্ষণ বা উপসর্গ খুব বেশি প্রতীয়মান হয়; এমনটা দেখলে দেরি না করে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়াটাই শ্রেয়। সেই ক্ষেত্রগুলো হচ্ছেঃ

  • খেলা-ধুলা বা ব্যায়াম করার সময় যদি শ্বাসকষ্ট হয়। বিশেষ করে শুকনো ও ঠান্ডা বাতাসে (যেমনঃ শীতের দিনে) ব্যায়াম করতে গেলে বেশি সমস্যা হলে।
  • বেশি ধুলোবালি বা রাসায়নিক দ্রব্য নিঃশ্বাসে প্রবেশ করার সময় শ্বাসকষ্ট হলে। বিশেষত ঘর-বাড়ি পরিস্কারের সময় বা বায়ু খুব দূষিত এমন এলাকায় ভ্রমনের সময় নিজের শ্বাস প্রশ্বাসের দিকে খেয়াল রাখুন। আপনার কর্মস্থলে রাসায়নিক পদার্থের ব্যবহার খুব বেশি হলেও আপনি সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন।
  • এলার্জির উদ্রেক করে এমন জিনিসের সংস্পর্শে এলেও আপনার এ্যাজমার উপসর্গগুলো বেড়ে যেতে পারে।

হাঁপানির উপশম-

অনেকেরই ধারণা হাঁপানির সম্পূর্ণ উপশম সম্ভব, অন্তত রাস্তা-ঘাটে যারা ঔষধ বিক্রি করেন, তাদের তো এই নিয়ে বড়াইয়ের শেষ নেই। কিন্তু সত্যি কথা হল হাঁপানির কোন চিরস্থায়ী উপশম নেই। হয়ত ঔষধের ব্যবহার ও শুষ্ক আবহাওয়ায় টানা অনেকদিনের জন্য ভাল থাকতে পারেন একজন হাঁপানি রোগী, কিন্তু এলার্জেন বা ধুলোবালি ভরা বাতাসে নিঃশ্বাস নিয়ে, আর্দ্র আবহাওয়ায় ফিরে এলে আবারও তাদের হাঁপানির উপসর্গগুলো ফিরে ফিরে আসার সম্ভাবনা খুবই বেশি।

আপনার বাড়িতে রক্তের সম্পর্কীয় কারও হাঁপানি থাকলে, এলার্জির সমস্যা থাকলে, ধূমপানের অভ্যাস থাকলে বা আশেপাশের কেউ চেইন স্মোকার হলে, ক্রমাগত বায়ু দূষনের শিকার হলে আপনার হাঁপানি হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। তাই সম্ভব হলে এই ব্যাপারগুলো এড়িয়ে চলুন। বিশেষত ধূমপায়ীদেরকে সিগারেট খেতে নিরুৎসাহিত করুন; কারণ শুধু হাঁপানিই নয় দেহের প্রায় বেশিরভাগ ক্যান্সারের সাথে ধূমপানের সম্পর্ক রয়েছে। ধূমপায়ীদেরকে নিরুৎসাহিত করাই এবারের World COPD Day এর উদ্দেশ্য। এবারের প্রতিপাদ্য তাই “It’s not too late”। আসলেই, এখনও দেরি হয়ে যায়নি- আপনার, আপনার সন্তানদের বা প্রিয়জনকে হাঁপানি কিংবা ক্যান্সার থেকে বাঁচাতে আজই পদক্ষেপ নিন।






e-HostBD Hosting Service