Best Reseller Hosting Service in BD

আপনারা দেখছেন "ইন্টারনেট" এর অন্তর্ভুক্ত পোস্টসমূহ

নিয়ে নিন Pre activated Internet Download Manager 7.1 আর ব্যবহার করুন আজীবন

আজ আর একটি সফটওয়্যার সম্পর্কে আলোচনা করবো যেটা সম্পর্কে সবাই কম বেশি জানেন। সেটা হল Internet Download Manager(IDM) । আমরা প্রাই সবাই (IDM) দিয়া ডাউনলোড করে থাকি। কারন এটা দিয়া ডাউনলোড করলে বেশি স্পীড পাওয়া যাই। তবে এখানে […]

বাংলা টকিং টম mp3 – Tom Funny Talking Offline

বাংলা টকিং টম mp3 - Tom Funny Talking Offline

Download Link বাংলা টকিং টম mp3 – Tom Funny Talking Offline টকিং টম এর ফানি কন্ঠে অফলাইন ভার্সন –এ এবার প্রকাশিত হলো টকিং টম বাংলা অডিও অ্যাপ। ডেভেলপার টীম WikiBdApps এই ফানি অডিও অ্যাপটি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছে। […]

গুগলের বিকল্প ৫টি সেরা সার্চ ইঞ্জিন

নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত? গুগলকে সন্দেহ করছেন? বা গুগলের বিকল্প নিয়ে ভাবছেন? হ্যা! আপনি ঠিক জায়গায় থেমেছেন। বর্তমানে সবাই জানে যে গুগল আপনার তথ্য সরাসরি সংরক্ষণ করছে ও বিক্রি করে দিচ্ছে। এটি কিছু সময় আপনাকে সুবিধা দিলেও, অনেক সময় […]

kidzio। One stop e-store

kidzio সোনামনিদের প্রয়োজনীয় সকল পন্য বিক্রয়কারী বাংলাদেশের প্রথম অন লাইন ভিত্তিক ই-শপ। এছারাও আমরাই প্রথম নিয়ে এসেছি Vendor ভিত্তিক ই-কমার্স সাইট। Kidzio – অনলাইন প্লাটফর্ম এর মাধ্যমে এখন সোনামনিদের জন্য ঘরে বসেই ক্রয় করতে পারেন। Visit করুন – […]

টেলিটক বন্ধ সিম অফার 2019 চালু করলেই ফ্রি ২ জিবি ইন্টারনেট [47 পয়সা / মিনি কল রেট]

টেলিটক বন্ধ সিম অফার 2019! Teletalk তাদের মূল্যবান প্রিপেইড গ্রাহকদের জন্য পুনরাবৃত্তি সিম অফার এনেছে। আপনি যদি আপনার নিষ্ক্রিয় / বন্ধ সিম সক্রিয় করতে চান তবে আপনি ২010 সালের টেলিটকের বন্ধ অফারটি উপভোগ করতে পারবেন। টেলিটক অ্যাক্টিঅ্যাক্টিভেশন ২019 […]

গ্রামিনফোন ৬ জিবি মাত্র ১৯৯ টাকায়

শর্তাবলী: ১৯৯ টাকায় ৬জিবি ৭ দিন মেয়াদে (অ্যাক্টিভেশন+ ৬) অ্যাক্টিভেশন কোড : *১২১*৩১৩৩# পরবর্তী নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত ইন্টারনেট অফারটি চলবে সকল জিপি গ্রাহকের জন্য অফারটি প্রযোজ্য অটো রিনিউয়াল প্রযোজ্য নয় ইন্টারনেট ভলিউম শেষ হবার পর ইন্টারনেট ব্যবহারে […]

এয়ারটেল 3 জিবি ইন্টারনেট 129 টাকা! মেয়াদ 10 দিন

এয়ারটেল 3 জিবি ইন্টারনেট 129 টাকা! মেয়াদ 10 দিন. এয়ারটেল আপনাকে কম খরচে দীর্ঘকালীন বৈধতার জন্য ইন্টারনেট উপভোগ করার সুযোগ দেয়, এ কারণে এয়ারটেল 1২9 টাকা ইন্টারনেট প্যাক চালু করেছে যা 10 দিনের জন্য বৈধ। এই অফারটি সক্রিয় […]

বাংলালিংক ৩ জিবি ইন্টারনেট মাত্র ৪২ টাকা – মেয়াদ ৭ দিন

বাংলালিংক ৩ জিবি ইন্টারনেট মাত্র ৪২ টাকা - মেয়াদ ৭ দিন

বাংলালিংক ৩ জিবি ইন্টারনেট মাত্র ৪২ টাকা ব্রাউজিং এখন চলবে ইচ্ছেমতো! বাংলালিংক গ্রাহকরা এখন মাত্র ৪২ টাকায় পাচ্ছেন ৩GB ইন্টারনেট! মেয়াদ ৭ দিন অফারের বিস্তারিত: অফারটি পেতে ৪২ টাকা রিচার্জ করুন অথবা ডায়াল করুন *5000*42# ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে […]

বন্ধ থাকা বাংলালিংকে নিয়ে নিন ১৪ জিবি পর্যন্ত ইন্টারনেট

যে কোন বন্ধ বাংলালিংক সিম চালু করে প্রথমবার ২৩ টাকা রিচার্জ করলে পাবেন ১৫ দিন মেয়াদের 1GB ইন্টারনেট সাথে আরো থাকছে যেকোনো বাংলালিংক নাম্বারে আধা পয়সা/সেকেন্ড টানা তিন মাস, অন্য অপারেটরে ১ পয়সা/সেকেন্ড আজীবন।১৫ দিন পরে প্রতিবার ৯ […]

ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ রাশিয়া ২০১৮ আজকের খেলা লাইভ দেখতে ক্লিক করুন, আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন ও পিসি খেলা দেখুন একদম ফ্রিতে দ্রুত ব্রাউজিং ট্রিক সহ

বর্তমান ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং দেখলে মনে হতে পারে স্পেন সবচেয়ে ফেবারিট। কিন্তু আমার দৃষ্টিতে বিশ্বকাপ জিততে হলে আরো কিছু জিনিষ কনসিডার করা জরুরী বলে মনে হয়। কয়েকটি ধারাবাহিক পর্ব লেখার ইচ্ছা আছে আমার বিশ্বকাপ নিয়ে। যার প্রথম কয়েকটি পর্ব […]

জিপি বৈশাখী অফার থাকছে ১ জিবি মাত্র ১৬ টাকায়

জিপিতে বৈশাখী অফার ২০১৮ এখন ১ জিবি ইন্টারনেট প্যাক পাও মাত্র ১৬ টাকায়। শুধু তাই নয় সাথে থাকছে আরো আকর্ষনীয় সব অফার। জিপির সকল প্যাকেজ এর আওতায় পড়বে অর্থ্যাৎ প্রিপেইড প্যাকজ এবং পোস্টপেইড প্যাকেজ সব গুলিই এর আওতাভুক্ত […]

কিভাবে ব্রডব্যান্ড কানেকশন অটো কানেক্ট করবেন

Broadband connection

সবাইকে শুভেচ্ছা। আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজকে অনেকদিন পর আসলাম আপনাদের মাঝে। কাজের চাপে এখন আর সময় দিতে পারি না। আসলে আমি নিজেই ব্রডব্যান্ড কানেকশন অটো কানেক্ট নিয়ে সমস্যায় পরেছিলাম তাই এইটা নিয়ে ঘাটাঘাটি করে এর সমাধান বের […]

ওয়েবসাইট করার আগে যে বিষয়গুলো অব্যশ্যই জানা থাকা চাই।

বর্তমান বিশ্বায়নের এইযুগে সবকিছু হয়ে যাচ্ছে অনলাইনমুখী।ব্যাক্তি থেকে শুরু করে সামাজিক,রাষ্টীয় সব কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার পিছনে থাকছে ইন্টারনেটের এক বিশাল অবদান।আর এমন একটা যুগে নিজের ব্যাক্তিগত বা ব্যাবসায়িক কোন অনলাইন পরিচিতি থাকবে না তা কি আর হয়?হ্যা সবার […]


ওয়েবসাইট করার আগে যে বিষয়গুলো অব্যশ্যই জানা থাকা চাই।

বর্তমান বিশ্বায়নের এইযুগে সবকিছু হয়ে যাচ্ছে অনলাইনমুখী।ব্যাক্তি থেকে শুরু করে সামাজিক,রাষ্টীয় সব কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার পিছনে থাকছে ইন্টারনেটের এক বিশাল অবদান।আর এমন একটা যুগে নিজের ব্যাক্তিগত বা ব্যাবসায়িক কোন অনলাইন পরিচিতি থাকবে না তা কি আর হয়?হ্যা সবার হয়ত কমবেশি ফেসবুকে বা অনন্যা সামাজিক মাধ্যমে নিজের একটা স্টাটাস আছে।কিন্তু সেখানে রয়েছে অনেক সীমাবদ্বতা।সেখানে আমরা নিজেকে বা নিজের ব্যাবশাকে ঠিক নিজেরদের মতো করে উপস্থাপন করতে পারি না।তাদের বেধে দেওয়া ডিজাইন আর সীমাবদ্বতার ভিতরেই থাকতে হয়।এতে কী আর পরিপূর্নতা আসে?না ,আসে না।তাই যারা নিজেকে বা নিজের ব্যবসায়ে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় নিজের মতো করে প্রকাশ বা প্রচারনার জন্য একটি ওয়েবসাইট করার কথা ভাবছেন তাদের জন্যও আজকের এই বিশেষ আর্টিকেলটি।

ওয়েবসাইটঃ

মুলত দুইভাবে করা যায়।ফ্রি আর পেইড।ফ্রিতে করতে চাইলে আপনি Blogspot.com,wordpress.com এ গিয়ে ফেসবুকের মতো করে নিজস্ব একটা প্রোফাইল করতে পারবেন মাত্র। ফ্রি জিনিসের বা পন্যের ভবিষ্যত কী…সেটা আশা করি কারোরই আজানা নয়।একটা জিনিস মনে রাখবেন…আপনার ওয়েবসাইট কিন্তু ১/২ দিন এর জন্য নয়,সারাজীবনের জন্য।তাই ফ্রীর প্রসঙ্গ এখানেই শেষ করছি। আর যদি চান,আকর্ষনীয় ডিজাইন ও পরিপূর্ন তথ্যে দিয়ে সুন্দর একটি কাঠামো গঠন করতে তাহলে আপনাকে অবশ্যই পেইড বা টাকা দিয়ে ওয়েবসাইট করার দিকেই যেতে হবে।আর এজন্য দরকার ডোমেইন আর হোস্টিং।এখানেই যত ঝামেলা।সঠিক ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন ও হোস্টিং ঠিক করতে না পারার কারনে অনেকেই বিশেষকরে নতুনরা ওয়েবসাইটের ১২টা বাজিয়ে ফেলে।

আর যাদের ডোমেইন/হোস্টিং নিয়ে ধারনা নেই তাদের জন্য ছোট্ট করে বলছি-

ডোমেইনঃ

সহজকথায় আপনার ওয়েবসাইটের এড্রেস বা ঠিকানাই হলো আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন।যেমনঃফেসবুকের ডোমেইন হলো facebook.com।ডোমেইন টাকা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হয় ও প্রতিবছর ভাড়া দিতে হয়।

ডোমেইন কই পাবো

আমাদের দেশে অনেক ডোমেইন প্রোভাইডার আছে যেখানে আপনি প্রায় ৮০০ টাকা হলেই একটি টপ লেভেলের ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।এটা রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ।পরবর্তী বছর থেকে আপনাকে প্রতিবছর ৮০০ টাকা করে ভাড়া দিতে হবে।

সতর্কতাঃ

অনেক ভুয়া বা প্রতারক প্রতিষ্ঠান আছে,যারা আপনাকে ফ্রি বা ২০০/৩০০/৫০০ টাকায় ডোমেইন দেওয়ার কথা বলবে……এদের থেকে সর্বদা সাবধান থাকবেন।এরা ১ম বছর আপানাকে বিভিন্ন অফার দিয়ে লোভ দেখিয়ে ডোমেইন কিনাবে ,কিন্তু পরের বছর থেকে সেই আপনার কাছ থেকেই টাকাগুলো উঠিয়ে নিবে।তখন ওয়েবসাইট বাচাতে তাদের চাওয়া পূরন করতে আপনি বাধ্য থাকবেন।নতুবা আপনার ওয়েবসাইট শেষ।তাই…টাকা একটু বেশী লাগলেও যাদের কোন হিডেন-ফি তাদের কাছ থেকে কিনুন।আপনার ওয়েবসাইট কিন্তু সারাজীবনের,১/২ দিনের জন্য না।

এবার হোস্টিং নিয়ে আলোচনা করা যাকঃ

হোস্টিংঃ ধরুন আপনি একটি বাড়ি করবেন।এজন্য আপনার দরকার একটি জায়গা নির্বাচন করা।ধরা যাক ,আপনি ঢাকাতে ২ একর জায়গার উপ বাড়িটি করবেন।তাহলে,ঢাকা হলো আপনার ডোমেইন বা ওয়েবসাইটের এড্রেস আর ২ একর পরিমানটা হলো আপনার হোস্টিং।

হোস্টিং কই পাবোঃ

যারা ডোমেইন সেল করে তাদেরকাছেই আপনি হোস্টিং পাবেন।তবে এক্ষেত্রেও প্রতারক থেকে সদা-সাবধান থাকবেন।টাকা একটু বেশি লাগে লাগুক।

দাম কেমনঃ

এটা নির্ভর করবে আপনি কত GB হোস্টিং চাচ্ছেন তার উপর।যদি ব্যাক্তিগত ওয়েবসাইট করেন তাহলে সবমিলিয়ে ২ GB হোস্টিংই যথেস্ট ও এটাই পারফেক্ট। আর 2 GB হোস্টিং এর মুল্য প্রায় ১৪০০ টাকা।আবার যদি ব্যবশায়িক ওয়েবসাইট করেন তাহলে নজর দিতে হবে ১০ GB বা তারও উপরে( ব্যবশায়ের আকারের উপর নির্ভরশীল)। এটার দাম পরবে আপনার প্রায় ২৩০০-৫০০০ টাকা।মানে যে যেমন লাভ করে আর-কী।কেউ একটু বেশী লাভ করে আবার কেউ কম।তবে এক্ষেত্রে নজর রাখতে পারেন-অনেক কোম্পানি মার্কেটিং করার জন্য অনেক কম লাভে হোস্টিং দিয়ে থাকে তাদের উপর।

চেস্টা করবেন একই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকেই ডোমেইন ও হোস্টিং নেওয়ার জন্য।তাহলে ওরাই সব সেটিংস করে দিবে

আবার অনেক কোম্পানি এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধাও দিয়ে থাকে।এতে করে পরবর্তীতে তাদের কাস্টমার সাপ্লাই দিয়ে ভালো পরিমান আয়ও করতে পাড়েন

হোস্টিং কেনার আগে যে বিষয়গুলো মনে থাকা চাইঃ

লোডিং স্পিডঃ

ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড অব্যশ্যই হাই থাকতে হবে।তা না হলে পড়তে হবে নান বিড়ম্ভনায় গুগল থেকে পেনাল্টিও খেতে পাড়েন।হোস্টিং প্রভাইডারের সাথে কথা বলে জেনে নিন কী-রকম লোডীং স্পিড তারা দিবে।

ব্যান্ডউইথঃ

আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর নির্ভর করবে আপানার ব্যান্ডউইথ এর উপর।যদি বেশী ব্যান্ডউইথ কিনেন তাহলে বেশী ভিজিটর আসতে পারবে আর কম ব্যান্ডউইথ কিনলে একটা সীমাবদ্বতা থাকবে।তাই যারা আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ দেয় তাদের কাছ থেকে কিনার চেস্টা করুন

আপটাইমঃ

অব্যশ্যই ৯৯.৯৯% থাকতে হবে।আর সচরাচর সবাই ৯৯.৯৯% দেয়

মানিব্যাক গ্যারান্টি-

মানিব্যাক গ্যারান্টি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। অনেক কোম্পানিই ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি দিয়ে থাকে। কেনার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন কোম্পানি মানিব্যাক গ্যারান্টি দিচ্ছে কিনা।

)সাপোর্টঃ

অব্যশ্যই ২৪ ঘন্টা লাইভ -সাপোর্ট যারা দিবে তাদের কাছ থেকে কিনুন।এটা খুব গুরুত্বপুর্ন

কন্ট্রোল প্যানেল-

আপনার ওয়েব সাইট ম্যানেজ করার জন্য কন্ট্রোল প্যানেল প্রয়োজন। কন্ট্রোল প্যানেলের সাহায্যে আপনি আপনার ওয়েব সাইট সহজেই ম্যানেজ করতে পারেন। ওয়েব হোস্টিং এ সব চেয়ে সহজ এবং অধিক ফিচার সমৃদ্ধ কন্ট্রোল প্যানেল হচ্ছে সিপ্যানেল। তাই সবসময় সিপ্যানেল হোস্টিং নেয়ার কথা চিন্তা করুন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং

আমারতো বাজেট কম? ভাই কমের ভিতর ভালো কেমনে পাবো।কমের মধ্যে ভালো পাবেন না। তবে আপনি ১৩০০/১৪০০ টাকায় কিনে খুব তাড়াতাড়ি সেটার দাম উঠিয়ে নিতে পারবেন। শুধু দামই না আপনার নিয়মিত একটা ইনকামের ব্যবস্থা করতে পারবেন। কেমনে?কেনার আগে খুজ নিন কোম্পানিটি এফিলিয়েট সুবিধা দেয় কিনা। যদি দেয় তাহলে পরবর্তীতে তাদেরকে কাস্টমার সাপ্লাই দিয়ে আপনি একটা ভালো এমাউন্ট আয় করতে পারবেন।

৭) সার্ভার লোড-

সাভার ওভার লোড কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নিন কোম্পানির সাপোর্টে কথা বলে

SSD ও HSD:

আপনার হোস্টিং অব্যশ্যই SSD হতে হবে।সাপোর্টে কথা বলে জেনে নিন তারা SSD না HSD প্রোভাইড করছে।

তাছারাও ইমেইল,দৈনিক ব্যাকাপ, personal client supporet,visrus protection ইত্যাদি বিষয়গুলোও অনেক বিবেচনা করবেন।

এখানে আমার দেখা ও ব্যবহার করা শুধু বাংলাদেশের নয়,পুরো world-wide ডোমেইন ও SSD হোস্টিং প্রোভাইডার Host4coder এর নাম না বললেই নয়।অন্যতম বিস্বস্ত ও হাই-স্পিড হোস্টিং প্রোভাইডার হিসেবে খুব কম সময়ের মধ্যেই গ্রাহকদের নজর কাড়তে পারেছি এটি।আপনারা চাইলে তাদের কাছ থেকে নিতে পাড়েন ।google এ Host4coder লিখে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন।তাদের ফেভারিট হওয়ার অন্যতম কারণ হলো,তারা শুরুতেই আপনাকে ৫০ জিবি হোস্টিং ও আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ প্রোভাইড করবে মাত্র ১৪১৪ টাকায় আর এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধাটিও থাকছে।গত ০২ বছরের রিসার্চে দেখা যায় Godaddy,Bluehost ইত্যাদি বিশ্বসেরা হোস্টিং কোম্পানির মতো Host4coder এরও আপটাইম ১০০%।তবে হ্যা ,কিনার আগে অব্যশ্যই অন্যান্য ডোমেইন-হোস্টিং প্রোভাইডার দেরদেও সার্ভিস সম্পর্কে ভালোভাবে খোজ-খবর নিয়ে আপনার জন্য যেটা best মনে করবেন তাদের কাছ থেকেই কিনুন।শুধু তিনটি জিনিস মাথায় রাখবেন-

১)স্পেস

২)ব্যান্ডউয়িথ

৩)প্রোগ্রামিং সাপোর্ট

এই সহজ তিনটি বিষয় বিবেচনা করে সহজেই আপনি চিনে নিতে পারবেন সেরা হোস্টিং প্রোভাইডারদের।

e-HostBD Hosting Service