Best Reseller Hosting Service in BD
মোট পোস্ট সংখ্যা: 5  »  মোট কমেন্টস: 0  
Facebook
Google Plus
Twitter
Linkedin

২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে যেই ল্যাপটপ মডেলটি

HP তাদের প্রিমিয়াম ল্যাপটপ সিরিজগুলোর মধ্যে নতুন একটি ল্যাপটপ সিরিজ বাজারে আনে ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে। এই ল্যাপটপ সিরিজটি হলো HP ENVY X360 মডেলের। প্রথমেই বাজারে আসে X360 13 মডেলের ল্যাপটপ এবং বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে আরো একটি মডেলে ENVY সিরিজের ল্যাপটপ পাওয়া যাচ্ছে সেটি হলো HP ENVY X360 Convert 13। বাজারে আসার সাথে সাথেই ল্যাপটপের পারফরম্যান্স এবং প্রিমিয়াম লুকিং এর জন্য সবার নজর কারে। স্পেশালি পার্ফর্মেন্স এবং প্রিমিয়াম লুকিং কথাটা বলছি কারনটা হলো ২০২০-২০২১ সাল পর্যন্ত বাজারে যে সকল ল্যাপটপ প্রিমিয়াম কালারে এভেইলেবল ছিল সেগুলো হয়ত দেখতে প্রিমিয়াম কিন্তু কাজের বেলায় অত ভালো পারফর্ম করতে পারেনি নতুবা কোম্পানিগুলো তাদের কালার কম্বিনেশন এ যে স্পেসটা রাখতে চেয়েছিলো সেটা রাখতে পারেনি গ্রাহকদের কাছে থেকে। সে দিক দিয়ে বলতে গেলে এই HP ENVY X360 সিরিজের ল্যাপটপগুলো ভিন্ন। এগুলো দেখতেও যেমন প্রিমিয়াম এবং গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী যথেষ্ট ইমপ্রেস করতে পেরেছে সাথে বিস্ট পারফরম্যান্স এর জন্য হেবি ইউজার দের কাছেও ভালো পজেটিভ রিভিউ পেয়েছে। যাকে বলা যায় বিউটি উইথ ব্রেইন। আর সব থেকে বড় সেলিং পয়েন্ট এই ল্যাপটপটির সেটা হলো এটি 360 ডিগ্রী ইউজ করা যায় সাথে টাচ স্ক্রিন এবং গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর জন্য বেশ ভালো একটি ডিভাইস হিসেবে পরিচিত পেয়েছে অলরেডি। তো চলুন আজকে আমরা এই বিউটি উইথ ব্রেইন ক্ষ্যাত HP ENVY X360 নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করি, বর্তমান বাজারে আপনার জন্য এই ল্যাপটপটি বায়িং অপশনে রাখা কতটা যুক্তিযুক্ত সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা থাকবে আজ। এই মডেলটির বর্তমান মূল্য সম্পর্কে জানতে এখানে ভিজিট করতে পারেন

ডিসপ্লে

এইচ পি প্রকাশিত HP ENVY x360 এই মডেলটিতে ভার্সন বা ভেরিয়েন্ট ভেদে সব ক্ষেত্রেই পরিবতর্ন রয়েছে প্রসেসর, গ্রাফিক্স, স্টোরেজ, ব্যাটারি ইত্যাদি সবক্ষেত্রেই কোনো না পরিবর্তন করা হয়েছে মূল্য এর উপরে ভিত্তি করে তবে যেই সেকশনটাই তেমন পরিবতর্ন দেখা যায় বা একই দিয়ে যাচ্ছে সবসময় সেটি হলো এর ডিসপ্লে সেকশন। এর যেই কয়টি মডেল ল্যাঞ্চ হয়েছে বা বর্তমান বাজারে রয়েছে এদের বেশির ভাগ ব্যবহার করা হয়েছে FHD ডিসপ্লে। যেই ডিসপ্লেটি ল্যাঞ্চ এর পর থেকেই নিজের ভালো একটা অবস্থান করে নিয়েছে ল্যাপটপ বাজারে। এই বার এই ডিসপ্লেটি নিয়ে কিছু কথা বলা যাক। এই ডিসপ্লেটিকে সাধারনত HD এর আপগ্রেড ভার্সন বলে গন্য করা হয়। HD ডিসপ্লে রেজুলেশনের সক্ষমতা দেওয়া হয়েছে 1280 x 720 এবং FHD ডিসপ্লেতে রেজুলেশনের সক্ষমতা রয়েছে 1920 x 1080 যার ফলে একটি HD এর বড় ভাই বলা চলে। আবার ঠিক একইভাবে QHD কে আবার FHD এর আগ্রেড ভাসর্ন বা বড় ভাই বলা যায় কারন এটিতে আবার রেজুলেশনের সক্ষমতা রয়েছে (2560 x 1440) এই পর্যায়ক্রমে রয়েছে এই ডিসপ্লেগুলো। সাধারনত মিড লেভেল থেকে হাই লেভেল সব জায়গায় FHD ডিসপ্লেটি ব্যবহার করতে দেখা যায়। এবং প্রথম এই ডিসপ্লেটি খুব ভালো সার্ভিস ও দিয়ে আসছে।

প্রসেসর

এইচপি তাদের HP ENVY x360 মডেলটি ল্যাঞ্চ করেছে একাধিক ভেরিয়েন্টে ডিভাইসের মূল্যর উপর ভিত্তি করে যার কারনে দাম এবং ভেরিয়েন্ট বা ভাসর্ন অনুসারে পরিবর্তন হয়েছে প্রসেসর ও। এ মডেলটিতে ভাসর্ন অনুসারে যে সমস্ত প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলো হলো AMD Ryzen™ 5, Intel® Core™ i5, AMD Ryzen™ 7 processor,Intel® Core™ i7 ইত্যাদি। এই প্রসেসরগুলি অনেক আগে ল্যাপটপ বাজারে নিজের একটা অবস্থান করে নিয়েছে। যার ফলে এদের আর নতুন করে পরিচয় করে দেওয়া নতুন পরিচিতির দরকার হয় নি। যদি শতকরা হিসাব করা হয় তাহলে শতকরা ৮০-৯০ ভাগ ল্যাপটপ বা পিসি এ প্রসেসরগুলি অর্থাৎ ইন্টেলের Core i এবং রাইজেনের AMD Ryzen দিয়ে গড়া। তবে HP ENVY x36 মডেলটির ভেরিয়েন্ট ভেদে যেই প্রসেসরগুলো ব্যবহার সেগুলোর কিছু তথ্য না দিলেই নয় । প্রসেসরগুলির এভারেজ বেস ফিক্রোয়েন্সি হলো 3.0 GHz থেকে 5.0 GHz পর্যন্ত যা আর বলার অপেক্ষা রাখে না কতটা দুর্দান্ত এই প্রসেসরগুলি। সবর্চ্চো cache রয়েছে HP ENVY x360 Core i7 এর ভেরিয়েন্টে যা 12 MB. এই প্রসেসরগুলি ব্রাউজিং থেকে শুরু করে গেমিং বা ইডিটিং ও ভালো পারর্ফমেন্স দিতে সক্ষম। তবে যারা একটু ভালো গেমিং বা হেভি ইউজিং করে থাকেন তাদের জন্য HP ENVY x360 Core i7 অথবা AMD Ryzen 7 এর ভেরিয়েন্টিই সেরা পছন্দ হবে। দাম কিছুটা বেশি হলেও এর দুর্দান্ত পারর্ফমেন্স আপনাকে সেটি ভাবতেও দিবে না।

e-HostBD Hosting Service

গ্রাফিক্স

HP ENVY x360 মডেলটির ভাসর্ন বা ভেরিয়েন্ট ভেদে ব্যবহার করা হয়েছে ইন্টেল এর Iris® Xe রাইজেনের AMD Radeon™ Graphics এবং NVIDIA® GeForce® MX450 এর গ্রফিক্স সিস্টেম। যেগুলির মধ্যে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে পারর্ফমেন্স এর দিক থেখে যেমন ইন্টেলের Iris® Xe এবং AMD Radeon™ কিছুটা পুরোনো প্রসেসর হিসেবে গন্য করা হয় অন্যদিকে GeForce® MX45 এই প্রসেসরটি ১৫ই আগস্ট ২০২০ এ ল্যাঞ্চ করা হলেও অনেকটা আপগ্রেডেড এবং এখন পর্যন্ত এই প্রসেসরটি প্রিয়িমাম এবং লেটেস্ট ডিভাইসগুলিতে ব্যবহার করতে দেখা দিচ্ছে। শুধু আগে ল্যাঞ্চ হলেও যে পুরোনো বলে উল্লেখিত হবে বিষয়টা তা নয় পুরোনো বলা চলে পারর্ফমেন্স এর উপর ভিত্তি করে। কিছু সংক্ষিপ্ত ধারনা দেওয়া যাক প্রসেসরগুলির সক্ষমতা বা পারর্ফমেন্স উপর। ইন্টেলর Iris® Xe গ্রাফিক্স সিস্টেমটিতে যদি আপনি গেমিং করেন তবে এই গ্রাফিক্সটি আপনাকে 1080p 60FPS পর্যন্ত পারর্ফমেন্স দিতে সক্ষম যা গেমিং এর জন্য খুব ভালো ঠিক একই ভাবে AMD Radeon™ প্রসেসরটির গেমিং পারর্ফমেন্সও রয়েছে এর কাছাকাছি বলা চলে । তবে GeForce® MX450 এর পারর্ফমেন্স কিছুটা আগ্রেডেড এদের তুলনায় বিশেষ করে প্রসেসরটির ক্লক স্পিড। প্রসেসরটিতে বুস্ট ক্লক স্পিড রয়েছে 1575 MHz যেটির আপনার গেমিং এক্সেপিরিয়েন্সকে করে তুলবে আরো ফাস্ট এবং সম্মুথ। এ গ্রফিক্স সিস্টেমটিতে তুলনা অনেকটা বেশি FPS এবং সম্মুথনেস পাওয়া যাবে Iris® Xe। আপনি যদি একটি ভালো ইডিটিং বা গেমিং করে থাকেন বা করতে চান তবে আপনার GeForce® MX450 এর ভেরিয়েন্টিই হবে একটি ভালো পছন্দ

আমার মতামত

প্রাইস রেঞ্জটা যখন এক লক্ষ থেকে দেড় লক্ষ তখন একটু কনফিউশন কাজ করায় স্বাভাবিক কারন এই প্রাইস রেঞ্জে বাজারে রয়েছে অগনিত ল্যাপটপ যা মাথা গুরিয়ে দেওয়ার মতো তবে শুধু ভালো লুক এবং বেশি বেশি স্পেসিফিকেশন হলেই সেরা নয় অবশ্যই এর মূল্য যাচাই করতে কতটা অর্থযোগ্য ল্যাপটপটি মডেলটি এবং কি বিশেষ দিক রয়েছে ল্যাপটপটিতে যা আমার কাজে সহযোগিতা করবে অবশ্যই এগুলো বিবেচনা করে ক্রয় করতে হবে। আমার নিজস্ব রেটিং চাইলে এই ল্যাপটপ মডেলটির উপরে তবে আমি এটিকে ১০ এ ৮.৫০ দিতে পছন্দ করব। আপনাদের মতামত আমাকে জানান।

ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না ...
e-HostBD Hosting Service
eHostBD Hosting

মন্তব্য করুন