Best Reseller Hosting Service in BD
মোট পোস্ট সংখ্যা: 14  »  মোট কমেন্টস: 0  
Facebook
Google Plus
Twitter
Linkedin

বাজেট কিলার ফোন প্রিমো আরএক্স৭ মিনি রিভিউ Primo RX7 Mini

৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম এর একটিমাত্র ভেরিয়েন্ট নিয়ে ওয়ালটন বাজারে লঞ্চ করেছে প্রিমো আরএক্স৭ এর লাইট ভার্সন প্রিমো আরএক্স৭ মিনি। স্মার্টফোনটির বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ৮৭৯৯ টাকা। স্মার্টফোনটির বিশেষত্ব হচ্ছে, একে বাজেট এর ভেতর গেমারদের জন্য তৈরি করা হয়েছে। আরএক্স৭ মিনির ‘ডিডিআর৪’ ৩ জিবি র‍্যামে আপনি বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় সব গেমগুলো অনায়াসেই খেলতে পারবেন।

 

একনজরে প্রিমো আরএক্স৭ মিনি

  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম
  • ১৯ঃ৯ রেসিও সম্পন্ন ৫.৯ ইঞ্চি এইচডি+ আইপিএস ইনসেল ডিসপ্লে
  • মিডিয়াটেক হেলিও পি৬০, ১.৮ গিগাহার্জ অক্টাকোর চিপসেট
  • ৩০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, টাইপ সি পোর্ট
  • ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা

ফোনটির বক্সে যা যা পাবেনঃ

e-HostBD Hosting Service

 

ডিসপ্লে এবং ডিজাইন

এর ৮৭৯৯ টাকা দামের সাথে বিবেচনা করলে প্রিমো আরএক্স৭ মিনি স্মার্টফোনটির ডিজাইন একদম গরজিয়াস। আর বাজারে এই দামে প্রিমো আরএক্স৭ মিনির মত এতো হ্যান্ডি এবং গুড লুকিং স্মার্টফোন খোঁজা আপনার জন্য বেশ কষ্টকরই হবে, বলা চলে। ফোনটির ফ্রন্ট প্যানেলের সাথে ব্যাকপার্টটিও সম্পূর্ণ গ্লাস বিল্ট।

আর স্মার্টফোন এর এই ব্যাক গ্লাসবিল্ট কে সুরক্ষা দেয়ার জন্য বক্স এর ভেতর একটি ট্রান্সপারেন্ট ব্যাককভার তো থাকছেই। আর ফ্রন্ট প্যানেলে থাকছে গরিলা গ্লাস প্রোটেকশন। হাত থেকে পরে গেলে ফেটে যাওয়ার একটা ঝুকি থাকছে, সে জন্য বলব এক্সট্রা স্ক্রিন প্রটেটর ব্যবহার করবেন, তার পাশাপাশি এর ফ্রি ব্যাক কভারও লাগিয়ে রাখতে ভুলবেননা।

স্মার্টফোনটি ৮.১ মিলিমিটার স্লিম, আর কার্ভ তথা সাইড থেকে হালকা হালকা বাঁকানো ডিজাইন বলে হাতে ধরে দারুন ভালো গ্রিপ পাবেন। ডান পাশে পাবেন পাওয়ার বাটন এবং ভলিউম বাটন, বাম পাশে পাবেন একটি ‘সিম+এসডি কার্ড ট্রে’। মজার ব্যাপার আপনি ২টি সিম এর পাশাপাশি ১২৮ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

উপরে পাবেন ৩.৫ মিলিমিটার অডিও জ্যাক পোর্ট এবং নিচে পাবেন স্পিকার গ্রিল, মাইক্রোফোন গ্রিল এবং ইউএসবি টাইপ ৩ বা সি পোর্ট। আর ইউএসবি টাইপ সি এই বাজেট এর স্মার্টফোনগুলোতে খুঁজে পাওয়া অনেক ভার! ব্যাকসাইডের উপরের দিকে মাঝামাঝি জায়গায় থাকবে, ডুয়াল ক্যামেরা মডিউল। তার নিচেই পাবেন একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

ফোনটির সেটিংসে আপনি নচ হাইড করার এবং নাইট লাইট এর বিশেষ সুবিধা পাবেন। ইউজার ইন্টারফেস এর দিক দিয়ে অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেমে রান করা ডিভাইসটি বেশ অপ্টিমাইজড। তবে বেশি কাস্টমাইজ করে ইউআইকে ভারি করা হয়নি।

অন্য সাধারণ সব ফিচার এর বাইরে স্পেশাল ফিচার হিসেবে এতে পাওয়া যাবে গুগল এর ওয়েলবিয়িং, পেরেন্টাল কন্ট্রোল, এন্টি থেফট কন্ট্রোল, জেসচার কন্ট্রোল ইত্যাদি। বর্তমান সময়ের স্মার্টফোনগুলোতে নচ থাকা যেনো একরকম ট্রেন্ড, নচ থাকতেই হবে। অবশ্যই অনেকেই নচকে পছন্দ করেন, তবে যারা নচ পছন্দ করছেননা, তারা সেটিংস থেকে নচকে হাইডও করে রাখতে পারবেন। আপনি এতে অনলাইন থিম অপশনও পাবেন।

ফোনটিতে পাবেন ১৯ঃ৯ রেসিও সম্পন্ন ৫.৯ ইঞ্চি এইচডি+ আইপিএস ইনসেল ডিসপ্লে। যার স্ক্রিন রেজুলেসন ১৫২০*৭২০ পিক্সেল। আর ডিসপ্লেটি আপ-টু ৪০০ নিটস পর্যন্ত ব্রাইটনেস দিতে সক্ষম যার ফলে রোদের ভেতরও আপনি স্ক্রিন দেখতে পাবেন ভালভাবেই।

ডিভাইস হার্ডওয়্যার, গেমিং এবং বেঞ্চমার্ক স্কোর

প্রিমো আরএক্স৭ মিনি কে যে হার্ডওয়্যার এর দিক দিয়ে বাজারের অন্যসব ফোনের তুলনায় বেশ শক্তপোক্ত এবং সেরা করা হয়েছে, তা এর বেঞ্চমার্ক স্কোরই প্রমান করে দেয়। প্রিমো আর এক্স৭ মিনি এর এনটুটু বেঞ্চমারক স্কোর এসেছে, ১৪৫৫১১(+-)। তাছাড়া অন্যান্য বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সাথে এর বেঞ্চমার্ক এর তুলনা বেশ ঈর্ষনীয়।

আর হালের জনপ্রিয় গেমগুলো যেমনঃ কল অফ ডিউটি, পাবজি, এস্পল্ট ৯ এসব গেমস সাধারন এবং মিডিয়াম গ্রাফিক্স সেটিংসে খেলা দিয়েছে একদম ল্যাগ ফ্রি ভাবে!

আর যার কারনে এই ফোনটিকে বলা হচ্ছে ফোন ফর গেমারস। আর এসব গেমিং এর জন্য ফোন কিরকম সাউন্ড প্রদান করছে তাও কিন্তু অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আর প্রিমো আরএক্স৭ মিনি এই দিক থেকেও থাকছে এগিয়ে, কেননা ফোনটির স্পিকার বেশ লাউড, সুতরাং গেমার দের জন্য বাজেট ফোন হিসেবে আরএক্স৭ মিনি ফোনটির বিকল্প মেলা ভার!

এতে পাওয়া যাবে মিডিয়াটেক হেলিও পি৬০, ১.৮ গিগাহার্জ অক্টাকোর চিপসেট। যার সাথে গ্রাফিক্স প্রোসেসিং ইউনিট হিসেবে থাকবে মালি জি৭২ এমপি৩ জিপিইউ। ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম এর পাশাপাশি পাওয়া যাবে ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। আর গেমিং এর জন্য এর বেঞ্চমার্ক স্কোর গেমিং এর জন্য একদম পারফেক্ট।

ক্যামেরা

রিয়ার ক্যামেরা হিসেবে পাবেন ডুয়াল ক্যামেরা সেটাপ। যার একটি প্রাইমারি ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি ৫ মেগাপিক্সেল। প্রাইমারি ক্যামেরাটির এপারচার এফ ২.০। আর ৫ মেগাপিক্সেলে এর সেকেন্ডারি ক্যামেরাটি ডেপথ সেন্সিং এর কাজ করবে। আর সাথে একটি ফ্ল্যাশ তো থাকছেই।

ক্যামেরা ইউআই চিরাচলিত এন্ড্রয়েন্ড স্টক ইন্টারফেস এর মতই। নরমাল, পোর্টরেইট, কিউট, বিউটি, কিউআর কোড স্ক্যানার এর মত শুটিং মোডগুলো পেয়ে যাবেন। আর বিএসআই সেন্সর হওয়ার ফলে লোলাইট ছবিগুলো হবে তুলনামূলক ভালো।

আর এর ফ্রন্ট প্যানেলে নচ বারের ভেতর পেয়ে যাবেন বিএসআই সেন্সর যুক্ত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। আর এপারচার এফ ২.২।

ফেস ডিটেকশন মোড এর পাশাপাশি নরমাল, কিউট, বিউটি, কিউআর কোড স্ক্যানার এর মত শুটিং মোডগুলো পেয়ে যাবেন। আর সেলফি প্রেমিদের এই ক্যামেরা পছন্দ হবে নিঃসন্দেহে। সুতরাং দামের হিসেবে প্রিমো আরএক্স৭ মিনি এর ক্যামেরা সাইডটিও এগিয়ে মনে হয়েছে।

পরিশেষে

স্মার্টফোনটিতে প্রাইমারি সিকিউরিটি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার। তবে সেকেন্ডারি ফিচার হিসেবে আপনি ফেস আনলক সুবিধা পাবেন। আর নরমাল পাসওয়ার্ড, পিন, প্যাটার্ন লক এগুলো তো থাকছেই। তবে চুরি থেকে সুরক্ষা এর জন্য এর ভেতর পাবেন এন্টি থেফট ফিচার।

তো যারা  ভাবছেন এই বাজেট এর ভেতর কোন ফোন কিনবেন, কি ফোন কিনবেন? তাদের জন্য আমার পরামর্শ নিঃসন্দেহে বাজারে দিয়ে এই প্রিমো আরএক্স৭ মিনি ফোনটি কিনে আনুন। আর ফোনটি আপনাকে নিরাশ করবেনা। আর ফোনটিকে বাজেট কিলার বললেও ভুল হবেনা। ৮৭৯৯ টাকায় বাজারের সেরা ফোন বলতে গেলে প্রিমো আরএক্স৭ মিনি, এবং এর স্থান দখল করা ভার।

ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না ...
eHostBD Hosting

মন্তব্য করুন