Best Reseller Hosting Service in BD
মোট পোস্ট সংখ্যা: 41  »  মোট কমেন্টস: 0  
Facebook
Google Plus
Twitter
Linkedin

Walton Primo R6 Hands On Review

e-HostBD Hosting Service

দশ হাজার টাকার মাঝে বেশ কিছু স্মার্টফোন রয়েছে। এর মধ্যে ওয়ালটন প্রিমো আর৬ অন্যতম। ডিভাইসটির কনফিগারেশন দাম অনুযায়ী বেশ মানানসই। চলুন কথা না বাড়িয়ে দেখে নেই ডিভাইসটির কনফিগারেশনের এক ঝলক।

এক নজরে প্রিমো আর ৬:  

  • ডুয়াল 4G স্ট্যান্ডবাই
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই
  • ১.৬ গিগাহার্জ অক্টা-কোর প্রসেসর
  • ৩ জিবি DDR4 র‌্যাম ৩২ জিবি রম
  • ১৫.৫ সে.মি.(৬.১”) ১৯:৯ HD+ আইপিএস ‘NOTCH’ ডিসপ্লে
  • (১৩+২) মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা
  • ফেস-আনলক, ফিংগারপ্রিন্ট স্ক্যানার
  • ৪,০০০ মিলি অ্যাম্পেয়ার ব্যাটারি
  • অনলাইন থিম, জেসচার ন্যাভিগেশন, ওটিজি, ওটিএ আপডেটের সুবিধাসহ আরও অনেক কিছু।
  • বাজার মূল্য ৯৫৯৯ টাকা।

আনবক্সিং

  •  প্রিমো আর৬ ডিভাইসটি
  • চার্জিং আড্যাপ্টার
  • ইউএসবি চার্জিং ক্যাবল
  • সিম ইজেক্টর পিন
  • একটি হেডফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল এবং সেফটি ইন্সট্রাকশন

অপারেটিং সিস্টেম

ইউজার ইন্টারফেস ডিসপ্লে ডিজাইন

প্রিমো আর৬ এ রয়েছে ১৯:৯ রেশিও সম্পন্ন (২.৫ডি কার্ভড) ৬.০৯ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচ.ডি প্লাস আইপিএস ডিসপ্লে। ডিসপ্লের রেজুল্যুশন ১৫২০*৭২০ পিক্সেল, আর এর উপরে থাকছে একটি টপ ‘ইউ বা ডট’ নচ। যে নচের ভেতর আমরা পাব একটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

তিনটি আকর্ষণীয় কালারে বাজারে ফোনটি পাওয়া যাচ্ছে  আর কালার গুলো হচ্ছে ক্রিমসন ডার্ক  টুইলাইট ব্লু এবং ডার্ক ব্লু। আমার কাছে ক্রিমসন ব্ল্যাক বেশি ভালো লেগেছে।

রিয়ার প্যানেলে সুবিধা জনক যায়গায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেয়া হয়েছে। ডুয়াল ক্যামেরা মডিউল একটি ফ্ল্যাশ এর সাথে ভারটিক্যাল ভাবে দেয়া হয়েছে। অভালঅল ডিজাইনটা বেশ প্রিমিয়িাম-ই লেগেছে  ডিভাইসিটর প্রসস্থতা ৭৩.৫ মিলিমিটার এবং উচ্চতা ১৫৫.৬ মিলিমিটার। এর পুরুত্ব ৮.৮৫ মিলিমিটার।  ব্যাটারি সহ প্রিমো আর৬ এর ওজন মাত্র ১৬৪ গ্রাম।

ক্যামেরা

প্রিমো আর৬ এর রিয়ার এবং ফ্রন্ট দু’পাশেই থাকছে বিএসআই সেন্সর যুক্ত ক্যামেরা। রিয়্যার প্যানেলের ক্যামেরা এ্যাপার্চার হলো এফ২.০। যার মাধ্যমে অবজেক্টকে তুলনামূলক ভালো ফোকাস পয়েন্টে রেখে খুব ভালো কিছু ছবি তুলতে সহায়তা করবে। এছাড়া ব্যাক গ্রাউন্ ব্লার করতেও ক্যামেরা এ্যাপার্চার ভালো কাজে আসবে।

ফ্রন্ট প্যানেলে সেলফি এবং সেলফ/ভিডিও কলিং এর জন্য পাচ্ছেন ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এর স্পেশাল ফিচার হিসেবে রয়েছে ৪পি ক্যামেরা লেন্স, মিরর সেলফি, ফেস ডিটেকশন সহ আরো অনেক কিছু। আমার মতে সেলফি লাভারদের জন্য এটি সত্যিই এই দামে অনেক বড় প্লাস পয়েন্ট।

ক্যামেরা ইউ আই  হার্ডওয়্যার

ফোনের গেমিং পাসফরমেন্স নির্ভর করে সাধারণত ডিভাইসের হার্ডওয়্যার এর উপ। হার্ডওয়্যার যদি উন্নত মানের হয় তাহলে গেমিং এবং মাল্টি টাস্কিং দ্রুত গতিতে করা যাবে। গেমিং এক্সপেরিয়েন্স হিসেবে বলতে গেলে প্রিমো আর৬ স্মার্টফোনটিতে আপনি হালের জনপ্রিয় যেসব গেমস রয়েছে; পাবজি, অ্যাস্পল্ট ৯ এগুলো অনায়াসে খেলতে পারবেন। আর এর ভেতর পাবজি খেলার জন্য যারা ১০ হাজার টাকার মধ্যে নতুন স্মার্টফোন খুঁজছেন, তারা এই প্রিমো আর৬ সহজেই নিশ্চিন্তে চুজ করতে পারেন। পাবজি এর পাশাপাশি ফ্রি-ফায়ার গেমটিও বেশ স্মুথলি খেলা যাবে।

ফোনটিতে থাকছে করটেক্স-এ৫৫ অক্টাকোর ১.৬ গিগাহার্জ প্রসেসর। আর এই অক্টাকোর প্রসেসর এর সাথে এতে গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট হিসেবে পাবেন পাওয়ারভিআর জিই৮৩২২ জিপিইউ। এর অন্যতম আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে, এতে পাওয়া যাবে ডিডিআর৪ ৩ জিবি র‌্যাম। আর ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে ৩২ জিবি।

বেঞ্চমার্ক

আমরা প্রিমো আর ৬ এর বেঞ্চমার্কিং স্কোর করেছি। ফোনটির এনটুটু বেঞ্চমারক স্কোর এসেছে ৭২৬৪১। গিক বেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোরে ১৪৮ এবং মাল্টি কোরে এসেছে ৭৯৯। সুতরাং স্কোর থেকে এর ক্ষমতা সম্পর্কে ধারনা আচ করতে পারছি নিশ্চয়ই। স্পেশাল ফিচার স্ক্রিন রেকর্ডঃ স্মার্টফোনটির ভেতর আপনি বিল্ট ইন স্ক্রিন ভিডিও ক্যাপচার সুবিধা পাবেন। স্ক্রিন রেকর্ড করার জন্য আপনাকে আর আলাদা করে কোন অ্যাপ ইন্সটল করতে হচ্ছে না।

স্মার্ট কন্ট্রোলঃ স্মার্টফোনটির ভেতর আপনি বেশ কিছু স্পেশাল ফিচারস পাবেন।  যেমন স্মার্টফোনটি হাত দিয়ে তুললে আপনি টাইম নোটিফিকেশন ইত্যাদি সব দেখতে পাবেন।

স্মার্ট মোশনঃ নম্বর টাইপ করে ডায়াল বাটন না চাপ দিলেও হবে, ফোন কানের কাছে নিলেই কল ডায়াল হয়ে যাবে। একই ভাবে কোন কল আসলে আপনি কানের কাছে ফোন নিয়ে গেলে অটোম্যাটিক কল রিসিভ হবে।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরঃ সিকিউরিটির জন্য আপনি এই ফোনের সাথে পাচ্ছেন একটি মোটামোটি ভালো রেসপন্স সম্পন্ন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

ফেস আইডিঃ  স্মার্টফোনটিতে আপনি ২ডি ফেস আনলক সুবিধা পাবেন।

ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং: আপনার দৈনন্দিন কার্যবিধি কে ট্র্যাক করার জন্য এই স্মার্টফোনের ভেতর থাকছে একটি বিশেষ ফিচার। আর যার নাম হচ্ছে ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং।  আর এই ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং ডেভেলপ করেছে গুগল।

ওয়ারেন্টি

ওয়ালটন এর অন্যসব ফোনের মতই এতে পাওয়া যাবে রিপ্লেসমেন্ট এবং ওয়ারেন্টি সুবিধা।

ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না ...

e-HostBD Hosting Service
eHostBD Hosting

মন্তব্য করুন